বিজেপি ২০০’র বেশি আসন নিয়ে বাংলায় সরকার গড়বে : মালদায় J P Nadda

JP nadda at malda

মালদা : বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জগত প্রসাদ নাড্ডার রেলিতে যে এত মানুষের ভিড় হবে, তা ভাবতেই পারি নি দলের রাজ্য এবং জেলা নেতৃত্ব । শনিবার দুপুরে চোখ ধাঁধানো রেলিতে দলীয় কর্মী সমর্থকদের ভিড় দেখে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। হুডখোলা গাড়ি থেকেই দুই হাত তুলে কখনো প্রণাম জানিয়ে, আবার কখনো গাঁদা ফুল জনতার উদ্দেশ্যে ছুঁড়ে অভিবাদন জানান তিনি।

এদিন মালদা শহর থেকে রবীন্দ্র এভেনিউ এলাকা পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার বিজেপির রেলি অনুষ্ঠিত হয়। আর সেই রেলিতে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী, রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, সাংসদ খগেন মুর্মু, দলের জেলা সভাপতি গোবিন্দ চন্দ্র মন্ডল সহ অন্যান্য নেতৃত্ব।

এদিন “আর নয় অন্যায়” এই কর্মসূচিকে ঘিরে শহরের ফোয়ারা মোড় থেকে শুরু করে আশেপাশে এলাকায় দলীয় কর্মী সমর্থকদের উপচেপড়া ভিড়ে তিল ধারণের জায়গা ছিল না। ঢাক-ঢোল, সাঁওতালি নাচের মাধ্যমে সম্পন্ন হয় রেলি। মাত্র এক ঘণ্টার এই রেলি দেখতে রাস্তার ধারে হাজার হাজার মানুষ দাঁড়িয়ে দীর্ঘ ক্ষণ ধরে অপেক্ষা করেন। এমনকি শহরের যে রাস্তা দিয়ে বিজেপির রেলি গিয়েছে, সেইসব এলাকার রাস্তার ধারে বাড়ির ছাদগুলিতে ছিল সাধারণ মানুষের উপচে পড়া ভিড় । এযেন রথযাত্রা দেখার মতোন মানুষের আগ্রহ ছিল। বিজেপি জেলা নেতৃত্বে তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে যে এদিনের এই রেলিতে প্রায় ৩০ হাজার মানুষ অংশ নিয়েছিল।

এদিনেই বিজেপির রেলি কর্মসূচি গ্রহণ করার অনেক আগে থেকেই মালদা শহরের ফোয়াড়া মোরে একের পর এক এলাকা থেকে বিজেপির মিছিল আসতে শুরু করে । শুধু ফোয়াড়া মোড় নয়, তার আশেপাশে অন্তত কয়েক কিলোমিটার এলাকা বিজেপি দলের নেতা,কর্মী, সমর্থকদের ভীরে উপচে পরে। বিজেপি কর্মী, সমর্থকদের সামলাতে গিয়ে রীতীমতো কালঘাম ছুটে যায় পুলিশ কর্তাদের।

এদিনের হুড খোলা জিপে করে রেলি করার পর রবীন্দ্র মূর্তির পাদদেশে গিয়ে সমাপ্তি হয় । সেখানে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা হাতে মাইক নিয়ে বলেন, জানুয়ারি মাস থেকে কৃষক সহায়ক সুরক্ষা অভিযান শুরু করেছিলাম। প্রায় ৪০ হাজার গ্রামে এই কর্মসূচি হয়েছে । এখনো পর্যন্ত ৩৫ লক্ষ মানুষ এই প্রকল্পে জুড়েছে । বছরে তিনবার করে কেন্দ্রের মোদি সরকারের কৃষক সম্মান নিধি মাধ্যমে টাকা পাচ্ছেন কৃষকেরা। কিন্তু মমতা দিদির সরকার কৃষকদের জন্য কিছুই করতে পারি নি।

বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা আরো বলেন, মালদায় রেশম থেকে আম চাষের জন্য বিখ্যাত । কিন্তু এখানে এসে কৃষকদের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারলাম যে বাংলায় তৃণমূল সরকার এবং রেশম চাষের ক্ষেত্রে বিশেষ কোনো উন্নতি করতে পারি নি। এরকম শুনে সত্যিই খুব খারাপ লাগলো। তাই তো আমরা বলছি “আর নয় অন্যায়”। এবারে চাষীরা তাদের নিজেদের অধিকার পাবেন। কারণ , এবারের বিজেপি বাংলায় সরকার গড়বে । প্রথমে চাষীদের জন্য বিস্তর সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা করা হবে। যা কেন্দ্রের মোদি সরকার একটার পর একটা প্রকল্পে করে দিচ্ছে।

বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা বলেন, আজকে যারা তৃণমূল ছাড়ছেন তারাই বলছেন ওই দলটা হচ্ছে দুর্নীতি এবং কাটমানির দল । গোরু পাচার হোক অথবা কয়লা কান্ড সবই এখন ধীরে ধীরে প্রকাশ পাচ্ছে । আসলে ঝুলি থেকে বিড়াল বেরিয়েছে। তাই আর নয় অন্যায় । এবারে বিজেপি ২০০’র বেশি আসন নিয়ে বাংলায় সরকার গড়বে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here